প্রতিদিন ৩০ মিনিট করে মাত্র একমাস, তারপর দেখুন ফলাফল

প্রকাশিত: ১১-০৪-২০১৮, সময়: ১০:২৫ |
Share This

নিয়মিত শরীরচর্চা কেন্দ্রে গিয়ে ঘাম ঝরানো সবার জন্যে এত সহজ ব্যাপার নয়। কিন্তু তারা কীভাবে ওজন কমাবে? আসলে জিমনেশিয়ামে গিয়ে ভারী ওজন টেনে-তুলে ওজন কমাতে হবে এমন কোনো কথা নেই। বরং ঘরে বসেই প্রতিদিন মাত্র ৩০ মিনিটের ব্যায়ামে আপনি একমাসের মধ্যে ওজনটাকে নিয়ন্ত্রণে আনতে পারেন। এখানে যে ব্যায়ামগুলোর কথা বলেছেন বিশেষজ্ঞরা, তা করলে পেটের চর্বিও চলে যাবে।

সিট-আপস 
অতি পরিচিত একটি ব্যায়াম। এটা যে কতটা কাজের তা কিছু দিন করতে পারলেই বুঝবেন। সটান মেঝেতে শুয়ে পড়ুন। হাঁটু ভাঁজ করে দুই পা মেঝেতেই থাকবে। মাথার নিচে দুই হাতের তালু এক করে দিন। এবার নিতম্বের ভর দিয়ে কোমর পর্যন্ত ওপরের দিকে তোলার চেষ্টা করুন। প্রথমদিকে বেশ কষ্ট হবে। কিন্তু কিছুদিন পরই কষ্ট চলে যাবে। তবে সিট-আপস দেওয়ার সময় দুই হাঁটু একটার সঙ্গে আরেকটা স্পর্শ করে থাকবে। নিঃশ্বাস বন্ধ করে উঠুন এবং শ্বাস ছাড়তে ছাড়তে আগের পজিশনে ফিরে যান। একই কাজ ১০-১৫ বার করুন।

ওয়াল সিট 
নামেই বোঝা যায় এ কাজের জন্যে আপনার একটা দেয়াল লাগবে। দেয়ালের সঙ্গে পিঠ লাগিয়ে দাঁড়ান। পা দুটো একটু সামনের দিকে থাকবে। হাত দুটো দেয়ালের সঙ্গে মিশে থাকবে। এবার পিঠ স্পর্শ থাকা অবস্থাতেই দুই হাঁটু মুড়ে বসুন এবং উঠুন। ডন-বৈঠকের মতোই। কিন্তু দেয়ালের সঙ্গে লেগে থেকে করতে হবে কাজটি। ওঠ-বসের কাজটি ১০-১৫ বার করুন।

মাউন্টেন ক্লাইম্বার
এ ব্যায়ামের মাধ্যমে দেহের বেশ কয়েকটি পেশি সক্রিয় হয়। পাহাড়ের ঢাল বেয়ে উঠার কাজটি আপনি যেভাবে করবেন, ব্যায়ামটি ঠিক তেমনই। প্লাঙ্ক পজিশনে চলে যান। এবার এক পায়ে ভর দিয়ে অন্য হাঁটু আপনার হাতের কাছে আনার চেষ্টা করুন। আবার ফিরে যান আগের পজিশনে। এবার অন্য পায়ে একই পদ্ধতিতে একই কাজ করুন। এভানে দুই পায়ে ২০-২৫ বার মাইন্টেন ক্লাইম্ব করুন। ইউটিউবের ভিডিও থেকেও ব্যায়ামটি শিখে নিতে পারেন।

ক্রাঞ্চেস 
এটা সিট-আপসের মতোই। তবে এখানে কোমর অবধি মাটি থেকে তুলতে হবে না। পিঠ মাটি থেকে তুলতে হয়। এ ব্যায়ামে পেটের চর্বি কমে যাবে। ক্রাঞ্চ করলে পেটে বেশ চাপ পড়ে। ঘাড় ও পিঠেরও ব্যায়াম হয়। এ পদ্ধতিতে পেটের ওপর চাপ দিয়ে ওপরে পিঠ তোলার চেষ্টা করবেন। কাজটি ১০-১৫ বার করুন।

টো-টাচেস 
মেঝেতে শুয়ে পড়ুন সোজা হয়ে। এবার দুই হাত সোজা পেছনে নিন। আপনি যেভাবে ক্রাঞ্চেস করেছেন এখানেও তাই করতে হবে। তবে পেছনে নেওয়া দুই হাত সোজা রেখেই সামনের দিকে নেবেন। এখানে পায়ের কাজও আছে। দুই পা সোজা রেখে ওপরের দিকে তুলুন এবং মাথা বরাবর আনার চেষ্টা করুন। এখানে হাত ও পায়ের কাজ একযোগে হবে। অর্থাৎ, দুই হাত এবং দুই পা একযোগে তুলবেন, ভর থাকবে নিতম্বে। টো-টাচেস বলার কারণ হলো, আপনি দুই পা তুলে পায়ের পাতা ছোঁয়ার চেষ্টা করবেন দুই হাত দিয়ে। স্পর্শ করেই ফিরে যান আগের অবস্থানে। একই কাজ করুন ১০-১৫ বার।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া

Comments

comments

Leave a comment

ফেসবুকে আমরা

লেখা পাঠান

আপনিও লিখতে পারেন। হতে পারেন আপনার জেলা কিংবা উপজেলার প্রতিনিধি।

সিভি পাঠান


news@digitalbangla24.com

সর্বশেষ সংবাদ

উপরে