হলি ফ্যামিলি হাসপাতালের প্রধানমন্ত্রী সহযোগিতা চান অবসরপ্রাপ্তরা

প্রকাশিত: ০৪-১০-২০১৮, সময়: ০৪:৪৯ |
Share This

গ্র্যাচুইটির জন্য নির্ধারিত অর্থ ছাড় করাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহযোগিতা কামনা করেছেন হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসক, কর্মকর্তা, সেবিকা ও কর্মচারীবৃন্দ। ‘অসহায় অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে’  বুধবার সকালে ঢাকা রিপোর্টাস ইউনিটির সাগর রুনি মিলনায়তনে এ বিষয়ে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছিল হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালের গ্র্যাচুইটি বঞ্চিতদের নিয়ে গঠিত সংগ্রাম কমিটি। সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য প্রদান করেন সংগ্রাম কমিটির সভাপতি ডা. শামসুদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক  অঞ্জলী গোমেজ, সহ-সাধারণ সম্পাদক আফজাল খান ও কমিটির সদস্য ফজলুর রহমান। তাদের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য প্রদান করেন খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের নেতা নির্মল রোজারিও।
সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা জানান, ২০০৮ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত আনুমানিক ২৩৫ জন চিকিৎসক, কর্মকর্তা, সেবিকা ও কর্মচারী হলী ফ্যামিলি হাসপাতাল থেকে অবসর গ্রহণ করেন। এ হিসেবে কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে পাওনা গ্র্যাচুইটির পরিমাণ প্রায় ৩১ কোটি ৩৫ হাজার টাকা। অবসরপ্রাপ্তদের অনেকেরই ৭ লাখ টাকা থেকে ৪৫ লাখ পর্যন্ত টাকা হাসপাতালের কাছে পাওনা রয়েছে। বছরের পর বছর কেটে গেলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এ টাকা দিতে গড়িমসি করছে। টাকা চাইলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ হাসপাতালের আয় কমে যাওয়ার কারণ দেখায়। কিন্তু মেডিকেল কলেজের আয় থেকে প্রতি মাসে বিপুল টাকা জমা হয়। সেই টাকা থেকে খুব সহজেই অবসরপ্রাপ্তদের গ্র্যাচুইটির গ্রাচুইটির অর্থ পরিশোধ করা সম্ভব।
সংগঠনের সভাপতি ডা. শামসুদ্দিন আহমেদের ভাষ্য, ‘নিজেদের প্রাপ্য বুঝে পেতে আমার বিগত ১০ থেকে ১২ বছর ধরে ঘুরছি। কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোনও গুরুত্ব দিচ্ছে  না।’ সাধারণ সম্পাদক অঞ্জলী গোমেজ জানিয়েছেন, এ বিষয়ে বিভিন্ন সময় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এবং বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান্যান হাফিজ আহম্মদ মজুমদারের কাছে বক্তব্য পেশ করা হয়েছে। অভিযোগ শুনে তিনি দু:খ প্রকাশ করলেও টাকা পরিশোধের বিষয়ে কিছুই বলেননি।

 

Comments

comments

Leave a comment

ফেসবুকে আমরা

লেখা পাঠান

আপনিও লিখতে পারেন। হতে পারেন আপনার জেলা কিংবা উপজেলার প্রতিনিধি।

সিভি পাঠান


news@digitalbangla24.com

সর্বশেষ সংবাদ

উপরে