ভোটের কারণে পিছিয়ে যাচ্ছে মাধ্যমিকের ভর্তি পরীক্ষা

প্রকাশিত: ০৭-১১-২০১৮, সময়: ১৪:০৮ |
খবর > জাতীয়
Share This

মাধ্যমিক পর্যায়ে ভর্তি ও বার্ষিক পরীক্ষার সময়সূচিতে পরিবর্তন আসছে। ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে বার্ষিক পরীক্ষা শেষ করতে হবে। আর ডিসেম্বরের শেষ দিকে ভর্তি পরীক্ষা আয়োজন করা হতে পারে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব জাভেদ আহমেদ।

জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কারণে ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে সব সরকারি-বেসরকারি হাইস্কুলের বার্ষিক ও ভর্তি পরীক্ষাসহ গুরুত্বপূর্ণ পরীক্ষা শেষ করার তাগিদ দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ কারণে বুধবার বার্ষিক ও ভর্তি পরীক্ষার সময়সূচি ঠিক করার ব্যাপারে বৈঠকে বসেছিল মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতর (মাউশি)। মন্ত্রণালয়েও এ নিয়ে বৈঠক হয়েছে।

এ ব্যাপারে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (বিদ্যালয়) জাবেদ আহমেদ বলেন, ইসির নির্দেশনামত বার্ষিক পরীক্ষা ১০ ডিসেম্বরের মধ্যেই শেষ করতে হবে। তবে সরকারি হাইস্কুলে ভর্তি পরীক্ষা ও প্রথম শ্রেণির লটারি ২৮, ২৯ ও ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে আয়োজন করা হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে বছরের শেষের দিকে বার্ষিক ও ভর্তি পরীক্ষা থাকে। এছাড়া জেএসসি এবং এসএসসি ও এইচএসসির নির্বাচনী পরীক্ষা থাকে।

অন্যদিকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বার্ষিক ও প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষা থাকে। তবে পিইসি পরীক্ষা এ মাসেই শেষ হয়ে যাবে। ইতোমধ্যে প্রাথমিকের বার্ষিক পরীক্ষার সময়সূচিতেও পরিবর্তন আনা হয়েছে। নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ২৯ নভেম্বর থেকে এই পরীক্ষা নিতে হবে। বার্ষিক শিক্ষাপঞ্জি অনুযায়ী ১১ ডিসেম্বর থেকে বার্ষিক পরীক্ষা নেয়ার নির্দেশনা ছিল।

এদিকে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে জটিলতা চলছে। এসব প্রতিষ্ঠানের পরীক্ষা আলাদাভাবে নেয়া হয়ে থাকে। এ কারণে ওই পরীক্ষার কী ভাগ্য হবে সেটি এখনও জানা যায়নি। যদিও ভিকারুননিসা নূন এবং উদয়ন উচ্চ বিদ্যালয়ের মত প্রতিষ্ঠান ইতোমধ্যে ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু করেছে। এমন পরিস্থিতিতে অবশ্য মন্ত্রণালয় নির্দেশনা জারি করবে বলে উল্লেখ করেছেন মাউশি পরিচালক অধ্যাপক আবদুল মান্নান।

তিনি বলেন, ১৭, ১৮ ও ১৯ ডিসেম্বর সরকারি হাইস্কুলগুলোতে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছিল। এখন ওই পরীক্ষা ২৮ ডিসেম্বর থেকে নেয়ার চিন্তাভাবনা আছে। ইতিপূর্বে ১ থেকে ১৩ ডিসেম্বর এই ভর্তির আবেদন অনলাইনে নেয়ার সিদ্ধান্ত ছিল। সেটি এ মাসের শেষের দিকে চলে আসতে পারে। এ ব্যাপারে প্রস্তুতি নিতে ইতোমধ্যে বুধবার টেলিটককে নির্দেশ দিয়েছে মাউশি। টেলিটক আবেদনপত্র গ্রহণে কারিগরি সহায়তা দিয়ে থাকে।

ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক তপন কুমার সরকার বলেন, ইসির নির্দেশনামত ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে সব পরীক্ষা শেষ করে শিক্ষক ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে মুক্ত রাখার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ইতোমধ্যে এসএসসির নির্বাচনী পরীক্ষা শেষ হয়েছে। ৩ ডিসেম্বরের মধ্যে এইচএসসি নির্বাচনী পরীক্ষা শেষ হবে। এ মাসের তৃতীয় সপ্তাহের মধ্যে শেষ হবে জেএসসি পরীক্ষা। ডিসেম্বরের শেষে এই পরীক্ষার ফলপ্রকাশ করা হবে।

Comments

comments

Leave a comment

ফেসবুকে আমরা

লেখা পাঠান

আপনিও লিখতে পারেন। হতে পারেন আপনার জেলা কিংবা উপজেলার প্রতিনিধি।

সিভি পাঠান


news@digitalbangla24.com

সর্বশেষ সংবাদ

উপরে